ইউরোপীয়ান ফুটবলে অনন্য রিয়াল মাদ্রিদ

0
352
football

ট্রান্সফার উইন্ডো চালু হলে চলতে থাকে নতুন নতুন রিউমার। সবার চোখ থাকে বড় বড় ক্লাবের উপর। ইউরোপীয়ান ফুটবলে ২০১৫/১৬ মৌসুম থেকে এখন পর্যন্ত বড় বড় ক্লাবের নিয়মিত একাদশের এসেছে বিশাল পরিবর্তন ব্যাতিক্রম শুধু রিয়াল মাদ্রিদের।

রিয়াল মাদ্রিদ

জিনেদিন জিদান ট্রান্সফার মার্কেটে কাজ করার জন্য রিয়াল মাদ্রিদ কোচ ছিলেন না, তাঁর লস ব্লাঙ্কোস দলটির প্রায়শই স্থির ফটোগ্রাফ তার চিত্রই দেখায়। এই ফরাসি কোচের অধীনে মৌসুমের উদ্বোধনী দুটি ম্যাচে দল নির্বাচন আর ২০১৮ আগের সেই দল নির্বাচনের সাথে অনেকটাই সাদৃশ্যপূর্ণ।

Real Madrid
Photo Credit: Marca

তিনি খেলোয়াড়দের প্রতি তার আত্মবিশ্বাস নতুন করে তৈরি করেছেন যা তিনি ২০১৫ সালে বার্নাব্যুর হোম ড্রেসিংরুমে পেয়েছিলেন। রিয়াল মাদ্রিদ ইউরোপের একমাত্র বড় দল, যারা ২০১৫ সাল থেকে তাদের খেলোয়াড়দের খুব বেশি পরিবর্তন করতে দেখা যায়নি, কেবল ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে হারিয়েছেন তারা। কেইলর লাভাস সম্ভত এই গ্রীষ্মে মাদ্রিদ ছেড়ে চলে যেতে পারেন।

বার্সেলোনা

২০১৫ সাল থেকে বিদায় নিয়েছেন নেইমার, ক্লোদিও ব্রাভো, দানি আলভেস, জাভিয়ের মাসচেরানো এবং আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা মত বড় তারকারা। ইভান রাকিটিস লুইস এনরিকের স্কোয়াডের মূল সদস্য ছিলেন, তবে এখন তিনি অনিশ্চিত ভবিষ্যতের মুখোমুখি হয়েছেন।

Barcelona
Photo Credit: Marca

অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ

একই অবস্থা লস কলচোনেরোসের ক্ষেত্রে , আপনি কোচকে বাদ দিয়ে সবকিছু পরিবর্তন করতে পারবেন। স্পেনের রাজধানীতে ডিয়াগো সিমিওন একটা ধ্রুবক ছিলেন। তবুও গ্যাবি, দিয়েগো গডিন, ফার্নান্দো টরেস, জুয়ানফ্রান, আন্টোইন গ্রিজম্যান এবং ইয়ানিক ক্যারাসকোকে স্পেনের রাজধানী থেকে চলে যেতে হয়েছে।

Athletico Madrid
Photo Credit: Marca

২০১৫/১৬ মৌসুম থেকে, কেবল জন ওবালক, জোস গিমেনেজ, কোকে এবং শৌল নিগুয়েজ এখনও রয়েছেন।

ম্যানচেস্টার সিটি

২০১৫/১৬ মৌসুমে এতিহাদ স্টেডিয়ামের দায়িত্বে ছিলেন ম্যানুয়েল পেলগ্রিনি, যদিও পেপ গার্দিওলার দায়িত্ব নেওয়ার আগে এটিই তার চূড়ান্ত মৌসুম ছিল। কেবল ফার্নান্দিনহো, কেভিন ডি ব্রুইনে, সার্জিও আগুয়েরো এবং ডেভিড সিলভা এখনও দলে রয়েছেন, যদিও পূর্বোক্ত প্রতিরক্ষা পুরোপুরি ভেঙে গেছে।

Manchester City
Photo Credit: Marca

ব্যাকারি সাগনা, ফার্নান্দো রেজেস, ভিনসেন্ট কোম্পানী, জো হার্ট, গেল ক্লিচি এবং যীশু নাভাস আর ক্লাবে নেই।

জুভেন্টাস

অ্যালেগ্রি একটি কঠিন মুহুর্তে জুভেন্টাসের দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন, যদিও তিনি ২০১৫/১৬ থেকে ক্লাবটি ছাড়ার সময় ২০১৮/১৯ মৌসুমের মধ্যে কিছু উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন করেছিলেন।

Photo Credit: Marca

পল পগবা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে চলে গেছেন, ক্লোদিও মার্চিসিও রাশিয়ায় একটি নতুন অ্যাডভেঞ্চারের জন্য যাত্রা করেছিলেন, আন্দ্রেয়া বারজাগলি অবসর নিয়েছেন, আলভেরো মোরাতা রিয়েল মাদ্রিদে ফিরেছেন এবং জিয়ানলুইগি বুফান প্যারিসে চলে গিয়েছিলেন তবে তিনি আবার ফিরেও এসেছেন।

বায়ার্ন মিউনিখ

গার্দিওলা ২০১৫ সালে বাভারিয়ায় দায়িত্বে ছিলেন এবং তার পর থেকে বেশ কিছু পরিবর্তন হয়েছে। জাবি আলোনসো, ফিলিপ লাম, ফ্রাঙ্ক রিবেরি, রবেন এবং আর্তুরো ভিদাল এখন আর নেই।

Bayern Munich
Photo Credit: Marca

জেরোম বোয়াটেং রয়েছেন তবে প্রথম দলে নিয়মিত নন, যদিও থিয়াগো আলকানতারা ইনজুরি থেকে ফিরে আসার পর থেকে খ্যাতি অর্জন করেছেন।

পিএসজি

যেমনটি আপনি প্রত্যাশা করছিলেন, পিএসজি তাদের খেলোয়াড়দের বিপুল সংখ্যক পরিবর্তন করেছে, যদিও দলটির পিছনে চলে যাওয়ার পক্ষে যুক্তি দেওয়া বেশ সহজ হবে, শেষ দুটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম নকআউট রাউন্ডে বাদ পড়েছে তারা।

PSG
Photo Credit: Marca

জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের পরিবর্তন ড্রেসিংরুমকে উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাবিত করেছেন। স্লজ অরিয়ার, থিয়াগো মোত্তা, ডেভিড লুইজ, ম্যাক্সওয়েল এবং ব্লেইস মাতুইদি সকলেই চলে গেছেন।

লিভারপুল

জুরগেন ক্লপ ২০১৫/১৬ মাঝামাঝি সময়ে যোগ দিয়েছিল, তবে এখনও ইউরোপা লীগের ফাইনালে পৌঁছেছে। সেভিয়ার সাথে সেই মাচের পর থেকে কেবল জেমস মিলনার এবং রবার্তো ফিরমিনো ক্লাবে রয়েছেন। জার্মান কোচ পুরোপুরি আনফিল্ড ক্লাবকে বদলে দিয়েছেন। তবে বার্সেলোনার ফিলিপ কৌতিনহো যাওয়ায় সন্তুষ্ট ছিলেন না তিনি।

Liverpool
Photo Credit: Marca

ছবিটি থেকে, কলো ট্যুরে, ড্যানিয়েল স্ট্রিজ, এম্রে ক্যান, আলবার্তো মোরেনো, সাইমন ম্যাগনলেট এবং কৌতিনহো সবই মের্সেইসাইড ছেড়েছে, তবুও নাথানিয়েল ক্লিন, অ্যাডাম লালানা এবং দেজন লভরেন এখনও কিছুটা অংশের ভূমিকা পালন করছেন।

সোর্স ঃ মার্কা

খেলার সর্বশেষ নিউজ পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন আর আমাদের সোশ্যাল পেজে যুক্ত থাকুন। ভালো লাগলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করবেন। ধন্যবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here