সাকিব আল হাসান ক্রিকেট বিশ্বের এক উজ্জ্বল লক্ষত্র। বাংলাদেশ নামটি বিশ্ব দরবারে তিনিই পরিচয় করে দিয়েছেন। তার জন্যই আজ কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছে ক্রিকেট নামটি। বার বার তিনি মাঠেই প্রমান করে দিয়েছে কেন তিনি বিশ্বের সেরা ক্রিকেটারদের একজন। ছোটবেলা থেকেই যার ভালবাসা ক্রিকেট আজ সেই ভালবাসার ক্রিকেট থেকেই তাকে নিষিদ্ধ করা হলো তাও আবার কোন দোষ না করেই।

জুয়ারিদের কোটি কোটি টাকার লোভেও বিক্রি করেনি তার ভালবাসার ক্রিকেট। জুয়ারিদের প্রস্তাবে কোন সাড়া দেননি তিনি, হয়ত অবহেলা করেই এড়িয়ে গেছেন বিষয়গুলা। কখনো ভাবেনি তিনি যে এই তুচ্ছ বিষয়গুলো তার থেকে কেড়ে নিবে তার ভালবাসার ক্রিকেট। এই সামান্য বিষয় নিয়ে এত বড় শাস্তি মেনে নিতে পারছে না কেউ। তাইতো ক্রিকেট থেকে ফুটবল, সবাই আজ স্তম্ভ। সবাই তার পাশে দাড়িয়েছেন। অপেক্ষা করছেন তার রাজকীয় ফিরে আসার জন্য। মাশরাফির মত কোটি কোটি ভক্তেরও ঘুম হয়নি এই খবরটি শোনার পর। সাংবাদিকরাও লুকাতে পারেনি চোখের পানি।

সাকিব কি
সত্যিই এই
শাস্তি পাওয়ার যোগ্য? প্রশ্ন রইলো বিশ্বের কাছে।

গত বিশ্বকাপের সেরা এই খেলোয়াড়কেই গ্যালারিতে বসে দেখতে হবে আগামী বছরের টি- টুয়েন্টি বিশ্বকাপ। সাকিবের এই শাস্তির পেছনে তার বাবাসহ সকল সমথকই দেখছেন ষড়যন্তের ছাপ।

ধর্মঘটের
পর থেকেই সমর্থকরা বুজতে পেরেছিল কিছু একটা ঘটতে যাচ্ছে তার বিপক্ষে। এত বড় শাস্তি
যে অপেক্ষা করছে তা কেউ কল্পনা করতে পারেনি।আইসিসি
সাকিবকে শাস্তি দেয়নি দিয়েছি ক্রিকেটকে। খবরের শিরোনামটি এমন হলে কেমন হতো টাকার
কাছে বিক্রি হয়নি সাকিব।

সাকিবের
প্রতি ভালবাসা আর বেড়ে গেলে। কোটি কোটি সমর্থক তার রাজকীয় ফিরে আসার অপেক্ষা করবে।
আবারও তিনি তার ভালবাসার ক্রিকেটে ফিরে আসুক। আশরাফুলের মত তাকে আমরা হারাতে
চাইনা।

সাকিবকে নিয়ে আপনার মতামত কমেন্ট করে জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here